ad code

*** সুখবর সুখবর সুখবর ***

FILE PICTURE

FILE PHOTO

*** সুখবর! সুখবর!! সুখবর!!! ***

             আসছে বাংলা শুভনববর্ষ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ, ১৪ এপ্রিল’১৬ইং- বিঝু বা সাংগ্রাই। এ উপলক্ষে মৈত্রীপুর ভাবনা কেন্দ্রে ৭ (সাত) দিনের জন্য প্রব্রজ্যা প্রদানের মাধ্যমে সমথ-ভাবনা কোর্স প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। তথাগত ভগবান বুদ্ধ বলেছেন- মনুষ্য জীবন লাভ করা দূর্লভ; জগতে বুদ্ধের উৎপত্তি দূর্লভ; সদ্ধর্ম শ্রবণ দূর্লভ এবং বুদ্ধ শাসনে প্রব্রজ্যা লাভ করা অতি দূর্লভ। অতএব, আপনি একজন অতি সৌভাগ্যবান। কেননা? আপনি বুদ্ধের উৎপত্তিকালে মনুষ্য জীবন লাভ করেছেন, সদ্ধর্ম শ্রবণ লাভেও আপনি অনেক সুযোগ লাভ করছেন এবং ইচ্ছা বা চেষ্টা করলেই হয়ত আপনি দূর্লভ প্রব্রজ্যা জীবনও লাভ করতে সক্ষম হবেন। অধিকন্তু ভগবান বুদ্ধ বলেছেন, শতবছর পাপময় জীবন-যাপনে বেঁচে থাকার চেয়ে একদিন শীল পালনের মাধ্যমে বেঁচে থাকা শ্রেয়ঃ। আপনি জন্ম হতে বর্তমান পর্যন্ত জীবনে কত কি যে অকুশল বা পাপকর্ম করেছেন তার কোন হিসাব নেই। অতীতের জন্ম-জন্মান্তরের কর্ম বিপাক কোথায় বা কি? কুশল কর্মই জন্ম জন্মান্তরের সুখের ভিত্তি; অন্তত জীবনের এহেন সুযোগে আপনি আপনার জীবনেকে ধন্য করার সুবর্ণ সুযোগ লাভ করতে পারেন। তাই আসুন, এ হেন দূর্লভ মনুষ্য জীবন উন্নতি শ্রীবৃদ্ধির জন্য উক্ত সাত দিনের প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করুন। কুশল বা পুণ্যের হেতুতে জন্ম জন্মান্তর সুখশান্তি তথা বৌদ্ধদের চরম লক্ষ্য নির্বাণ; এ অমৃতময় নির্বাণ লাভের পারমী পূর্ণ করুন।
এতএব, বর্ষবরণের মোহ আনন্দ-উৎসবে অল্প ইন্দ্রিয় সুখকে পরিত্যাগ করে বিপুল সুখের অধিকারী হওয়ার জন্য সাদর আমন্ত্রণ করা হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ
মৈত্রীপুর ভাবনা কেন্দ্র
ইটছড়ি, খাগড়াছড়ি
খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা।

***প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ আগামী ২৫ মার্চ ২০১৬ইং তারিখের মধ্যে স্বশরীরে এসে প্রব্রজ্যা নিবন্ধন ফ্রম পূরণ করে জমা দিতে হবে।***

অনুষ্ঠান কর্মসূচী

তারিখঃ ০৫/০৪/২০১৬ ইং দুপুর ১.৩০ টা অষ্টশীল গ্রহণ।
০৭/০৪/২০১৬ ইং দুপুর ১.৩০ টা প্রব্রজ্যা গ্রহণ।
১৪/০৪/২০১৬ ইং সকাল বেলা সমাপনী।

 

IMG_3039
* প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণের অষ্টপরিস্কার সেটসহ কিছু অন্যান্য উপকরণসহ ( রুমাল/টোয়েল, খাতা-কলম ও শীতল পাটি) মূল্য= ২,০০০/(দুই হাজার) টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর কেহ যদি অন্যত্র থেকে শ্রামণের অষ্টপরিস্কার সেটসহ অন্যান্য উপকরণ সঙ্গে নিয়ে আসতে পারে তাদের থেকে কোন ফি নেওয়া হবে না।
* স্কুল এবং কলেজে পড়ুয়া ছাত্রদেরকে আলোচন সাপেক্ষে উক্ত মূল্য শিথিল করা হবে।
* প্রব্রজ্যা গ্রহণের দিন (০৭/০৪/২০১৬ইং) অবশ্য মাত-পিতা অথবা ভাই-বোন এর মধ্যে অবশ্য অনন্ত পক্ষে একজন ব্যক্তি উপস্থিত থাকতে হবে। মাতা-পিতা কিংবা ভাই-বোন/স্ত্রী-পুত্র কোন ব্যক্তি না থাকলেও অবশ্য কোন না কোন নিকটতম আত্মীয় স্বজন অবিভাবক হিসাবে উপস্থিত থাকতে হবে।
* প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ উপরোক্ত নির্ধারিত অষ্টপরিস্কার ও অন্যান্য উপকরণের বাবত টাকাগুলো (২,০০০/-) মার্চ মাসের ৩০ তারিখের মধ্যে জমা দিতে হবে।

* প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ অবশ্যই পঠন-পাঠনের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে। তবে কোন প্রব্রজ্যা প্রার্থীর মধ্যে সাহায্যকারী হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণকারী থাকলে কিংবা দায়িত্ব নিতে পারলে নীরক্ষর ব্যক্তিকে বিশেষ বিবেচনার করা যেতে পারে।

* অতি বৃদ্ধ ব্যক্তি অথবা দূরারোগ্য ব্যধিগ্রস্ত যুবক হয়ে থাকলেও তাঁকে বিবেচনা করা হবে না।

* বয়স সর্বনিম্ন ১২ বছর হতে সর্বোচ্চ ৬৫ বছরের মধ্যে।

* প্রব্রজ্যা প্রার্থীর আসন সংখ্যা ১০০ জন মাত্র।

DIGITAL CAMERA

FILE PHOTO

DIGITAL CAMERA

FILE PHOTO

প্রব্রজ্যা প্রার্থীদের অষ্টপরিস্কারসহ অন্যান্য উপকরণ সমূহ

১। অষ্টপরিস্কার সেট- (ক) ত্রি-চীবর (উত্তরাসংঘ, একাসিক এবং অন্তর্বাস, পাত্র বা (সাবেক) (খ) কটিবন্ধনী, (গ) জল ছাকনী, (ঘ) সুঁই-সূতা, এবং (ঙ) ক্ষুর অথবা ব্লেড।

২। প্রয়োজনী উপকরণ- (ক) রুমাল/টোয়েল ২টি, (খ) নিজস্ব ব্যবহারের জন্য সেন্ডেল ১ জোড়া, (গ) খাতা ও কলম ১ টি করে, (ঘ) শীতল পাটি, (ঙ)দাঁতের ব্রাস ও টুটপেষ্ট, (চ) টর্চ লাইট (পুরাতন হলেও চলবে), (ছ)বেডসিট ১টি, (জ) বালিশ (পুরাতন হলেও চলবে, যদি নিজের প্রয়োজন হয়), (ঝ) মশারী (পুরাতন হলেও চলবে। টর্চ লাইট, মশারী, বালিশ এবং বেডসিট এগুলো পুনঃরায় স্বগৃহে ফেরত নিতে পারবেন।

৩। সচরাচর প্রব্রজ্যা প্রার্থীরা প্রব্রজ্যা হ্ওয়ার সময় “মঙ্গলঘট” নিয়ে আসেন। এ ক্ষেত্রে স্বইচ্ছা স্বরূপ নিয়ে আসতে পারেন। একে পরিবার থেকে হয় তো দুই জন ব্যক্তিও প্রব্রজ্যা নিতে পারেন; দুজনের দুটি মঙ্গলঘট নিয়ে আসা প্রয়োজন নেই। আর কয়েক জন একত্রিত হয়ে কিংবা সবাই মিলে একটিও করা যাবে এতে কোন ধরা-বাধা নেই।

সচরাচর গুণগতমান অনুসারে অষ্টপরিস্কার সেটের মূল্য-
১) বাংলাদেশী অষ্টপরিস্কার সেট মূল্য= ২,২০০/- টাকা
২) বার্মীজ অষ্টপরিস্কার সেট মূল্য= ৩,৫০০/- টাকা
৩) থাইল্যান্ডী অষ্টপরিস্কার সেট মূল্য= ৬,৫০০/- টাকা

বিশেষ দ্রষ্টব্য

            নিম্নে বর্ণিত তথাগত ভগবান বুদ্ধের প্রজ্ঞাপ্ত বিনয় পিটকে বর্ণিত ৩২ প্রকারের মধ্যে যে কোন একটি অঙ্গ পরিহানী হয়ে থাকলে তাহলে তিনি প্রব্রজ্যা লাভের অযোগ্য বলে বিবেচিত হন, যেমনঃ- (১) হস্তচ্ছিন্ন, (২) পদচ্ছিন্ন, (৩) হস্তপদচ্ছিন্ন, (৪) কর্ণচ্ছিন্ন, (৫) নাসিকাচ্ছিন্ন, (৬) কর্ণ-নাসিকাচ্ছিন্ন, (৭) অঙ্গুলীচ্ছিন্ন, (৮) অঙ্গুষ্ঠাচ্ছিন্ন, (৯) স্নায়ুচ্ছিন্ন, (১০) বাদুরের ডানার ন্যায় হস্ত বিশিষ্ট, (১১) কুজ্ব (ল্যাঙড়া), (১২) বামন, (১৩) গলগন্ধ বিশিষ্ট, (১৪) লক্ষণাহত (জ্বলন্ত লৌহ চিহ্নিত, (১৫) কশাহত (বেত্র দন্ডে দন্ডিত), (১৬) ফাঁসির দন্ডাদেশ আসামী, (১৭) শ্লীপাদক, (১৮) দুরারোগ্য রোগী, (১৯) পারিষদ-দূষক (বিকটাকৃতি ব্যক্তি), (২০) কাণা, (২১) কুণী (হস্তপদ কিংবা অঙ্গুলী বক্র), (২২) খঞ্জ, (২৩) পক্ষাঘাত রোগী, (২৪) ইর্য্যাপথরহিত (চলশক্তিহীন) ব্যক্তি, (২৫) জরাগ্রস্ত দূর্বল ব্যক্তি, (২৬) অন্ধ, (২৭) বোবা, (২৮) বধির, (২৯) অন্ধ ও বোবা, (৩০) অন্ধ ও বধির, (৩১) বোবা ও বধির, (৩২) অন্ধ, বোবা ও বধির ইত্যাদি।

DIGITAL CAMERA

DIGITAL CAMERA

সতর্কীকরণঃ

১) প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ কোন ধুমপান করতে পারবেন না।
২) প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না।
৩) প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ কোন ঝগড়া-বিবাদ করতে পারবেন না।
৪) প্রব্রজ্যা প্রার্থীগণ উপরোক্ত বিনয় পিটকে উল্লেখিত ৩২ প্রকার কারণ থেকে কোন এক প্রকার কারণ প্রমাণ (প্রব্রজ্যা গ্রহণের পরেও) পাওয়া গেলে তাহলে স্বেচ্ছায় প্রব্রজ্যা ত্যাগ করতে বাধ্য করা ।

৫) উক্ত প্রশিক্ষণ চলাকালীন নিয়ম-কানুন অমান্য করলে বা সে শ্রামণকে বারংবার বারণ করার সত্বেও তবুও যদি বিনয় লংঘন করলে তাহলে বুদ্ধের প্রজ্ঞাপ্ত বিনয় অনুসারে সে শ্রামণকে বহিষ্কারে বাধ্য করা হবে।

কর্তৃপক্ষ
মৈত্রীপুর ভাবনা কেন্দ্র
ইটছড়ি, খাগড়াছড়ি
খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা।

 

 

শ্রামণের দৈনিক রুটিন

০১। ভোর ৪.০০ মিনিটঃ শয্যাসন ত্যাগ । ঘুম থেকে উঠে যাবতীয় শৌষাগার ব্রত শেষ করে পরবর্তী কর্মসূচীর জন্য প্রস্তুত।
০২। ভোর ৪.৩০ মিনিটঃ সমবেত ত্রিরত্ন বন্দনা পর্ব।
০৩। ভোর ৪.৪৫ মিনিটঃ ভাবনা।
০৪। ভোর ৫.৪৫ মিনিটঃ পানীয় ভোজন এবং পিন্ডাচরণ।
০৫। সকাল ১০.১৫ মিনিটঃ স্নান।
০৬। সকাল ১০.৪৫ মিনিটঃ ভোজন গ্রহণ।

০৭। দুপুর ১২.৪৫ মিনিটঃ ভাবনা প্রশিক্ষণ।
০৮। দুপুর ২.১৫ মিনিটঃ ধর্মীয় দেশনা শ্রবণ/ ধর্মীয় বিষয় প্রশ্নোত্তর পর্ব।
০৯। বেলা ৪.০০ মিনিটঃ শ্রামণের ব্রত পালন।
১০। সন্ধ্যা ৬.১৫ মিনিটঃ সমবেত ত্রিরত্ন বন্দনা।
১১। সন্ধ্যা ৬.৪৫ মিনিটঃ তরলজাতীয় পনীয়পান।
১২। সন্ধ্যা ৭.০০ মিনিটঃ দশশীল গ্রহণ এবং দশশীল গ্রহণের পর হিতোপদেশ শ্রবণ।
১৩। রাত ৮.১৫ মিনিটঃ ভাবনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ।
১৪। রাত ৯.১৫ মিনিটঃ ভাবনা।
১৫। রাতঃ ১০.১৫ ‍মিনিটঃ শয়নাসন গ্রহণ।

Joint Us

Calender

November 2019
M T W T F S S
« Feb    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930  

Photos on Flickr